কুরআন থেকে দো‘আঃ

পিতা মাতার জন্য দো‘আ :                                                                                                                                    

-رَبَّنَا ٱغۡفِرۡ لِي وَلِوَٰلِدَيَّ وَلِلۡمُؤۡمِنِينَ يَوۡمَ يَقُومُ ٱلۡحِسَابُ

উচ্চারণঃ রব্বানাগ ফিরলী অলিওয়া লিদাইয়্যা অ- লিল্ মু’মিনীনা ইয়াওমা ইয়াক্বুমুল্ হিসা-ব্।     

অর্থঃ হে আমাদের রব, যেদিন হিসাব কায়েম হবে, সেদিন আপনি আমাকে, আমার পিতামাতাকে ও মুমিনদেরকে ক্ষমা করে দিবেন।’
[সুরা ইবরাহিম : আয়াত  ৪১]

-رَّبِّ ٱغۡفِرۡ لِي وَلِوَٰلِدَيَّ وَلِمَن دَخَلَ بَيۡتِيَ مُؤۡمِنٗا وَلِلۡمُؤۡمِنِينَ وَٱلۡمُؤۡمِنَٰتِۖ وَلَا تَزِدِ ٱلظَّٰلِمِينَ إِلَّا تَبَارَۢا

উচ্চারণঃরব্বিগফিরলী অলি ওয়ালিদাইয়া অ লিমান দাখালা বাইতিয়া ম’মিনাও অলিলমু’মিনিনা অলমু’মিনা-ত। অলা- তাজিদিজ্জ-লিমীনা ইল্লা তাবার-।

অর্থঃ ‘হে আমার রব! আমাকে, আমার পিতা-মাতাকে, যে আমার ঘরে ঈমানদার হয়ে প্রবেশ করবে তাকে এবং মুমিন নারী-পুরুষকে ক্ষমা করুন এবং ধ্বংস ছাড়া আপনি জালিমদের আর কিছুই বাড়িয়ে দেবেন না।’[সুরা নুহ : আয়াত ২৮]

-رَّبِّ ارْحَمْهُمَا كَمَا رَبَّيَانِي صَغِيرًا

উচ্চারণঃ রববির হামহূমা-কামা-রব্বাইয়া-নী ছগীর-।

অর্থঃ হে আমার রব, তাদের উভয়ের প্রতি রহম কর, যেমন তারা আমাকে শৈশবকালে লালন-পালন করেছেন।[সূরা বনী ইসরাঈল –  ২৪]

পরিবার  ও সন্তান সন্ততিদের জন্য দো‘আঃ

-رَبَّنَا هَبۡ لَنَا مِنۡ أَزۡوَٰجِنَا وَذُرِّيَّٰتِنَا قُرَّةَ أَعۡيُنٖ وَٱجۡعَلۡنَا لِلۡمُتَّقِينَ إِمَامًا

উচ্চারণঃ রব্বানা-হাবলানা-মিন্ আয্ওয়া-জ্বিনা-অ জুররিয়্যা-তিনা-কুররাতা আ’ইয়ুনিঁও অজ্ব আল্না-লিলমুত্তাকীনা ইমা-মা-।

অর্থঃ‘ হে আমাদের রব, আপনি আমাদেরকে এমন স্ত্রী ও সন্তানাদি দান করুন যারা আমাদের চক্ষু শীতল করবে। আর আপনি আমাদেরকে মুত্তাকিদের নেতা বানিয়ে দিন।’ [সুরা আল ফুরকান : আয়াত ৭৪]

-رَبِّ ٱجۡعَلۡنِي مُقِيمَ ٱلصَّلَوٰةِ وَمِن ذُرِّيَّتِيۚ رَبَّنَا وَتَقَبَّلۡ دُعَآءِ

উচ্চারণঃ রব্বিজ্ব্‘আলনি মুক্বীমাছ্ ছলা-তি অমিন্  যুররিয়্যাতী রব্বানা- অ তাক্বাব্বাল্ দু‘আ-।

অর্থঃ‘হে আমার রব, আমাকে নামাজ কায়েমকারী বানান এবং আমার বংশধরদের মধ্য থেকেও (নামাজ কায়েমকারী বানান), হে আমাদের প্রভু, আর আমার দোয়া কবুল করুন।[ আয়াতঃ  ৪০-৪১]

-رَبَّنَا وَاجْعَلْنَا مُسْلِمَيْنِ لَكَ وَمِن ذُرِّيَّتِنَا أُمَّةً مُّسْلِمَةً لَّكَ وَأَرِنَا مَنَاسِكَنَا وَتُبْ عَلَيْنَآ إِنَّكَ أَنتَ التَّوَّابُ الرَّحِيمُ

উচ্চারনঃ রব্বানা- অজ্ব‘আললানা- মুস্লিমাইনি লাকা অমিন্ জুর্রিয়্যাতিনা- উম্মাতাম্ মুস্লিমাতাল্লাকা অআরিনা-মানা-সিকানা-অতুব্ ‘আলাইনা-ইন্নাকা আন্তাত্ তাওয়্যা-বুর্রাহীম্।

অর্থঃ হে আমাদের রব  আমাদের উভয়কে তোমার আজ্ঞাবহ কর এবং আমাদের বংশধর থেকেও একটি অনুগত দল সৃষ্টি কর, আমাদের হজ্বের রীতিনীতি বলে দাও এবং আমাদের ক্ষমা কর। নিশ্চয় তুমি তওবা কবুলকারী। দয়ালু। [সূরা আল বাক্বারাহ -১২৮]

সন্তান লাভের জন্য দো‘আঃ

-رَبِّ هَبْ لِي مِن لَّدُنْكَ ذُرِّيَّةً طَيِّبَةً إِنَّكَ سَمِيعُ الدُّعَاء

উচ্চারনঃ রব্বি হাবলি মিল্লাদুন্কা জুর্রিয়্যাতান্ ত্বোয়াইয়িবাতান্, ইন্নাকা সামী ‘উদ্ দু‘আ -।

অর্থঃ হে, আমার  রব ! তোমার নিকট থেকে আমাকে পুত-পবিত্র সন্তান দান কর-নিশ্চয়ই তুমি প্রার্থনা শ্রবণকারী। [সূরা সূরা আল ইমরান- ৩৮]

-رَبِّ لَا تَذَرْنِي فَرْدًا وَأَنتَ خَيْرُ الْوَارِثِينَ

উচ্চারণঃ রব্বি লা-তাজারনী ফারদাঁও অআন্তা খাইরুল্ ওয়ারিছীন্।

অর্থঃ হে আমার রব আমাকে একা রেখো না। তুমি তো উত্তম ওয়ারিস। [সূরা আম্বিয়া- ৮৯]

-رَبِّ هَبْ لِي مِنَ الصَّالِحِينَ

উচ্চারণঃ রব্বি হাবলী মিনাছ্ ছোয়া-লিহীন্।

অর্থঃ হে আমার পরওয়ারদেগার! আমাকে এক সৎপুত্র দান কর।
[সূরা আস-সাফফাত- ১০০]

হেদায়েতের পথে অবিচল থাকার দো‘আঃ

-رَبَّنَا لاَ تُزِغْ قُلُوبَنَا بَعْدَ إِذْ هَدَيْتَنَا وَهَبْ لَنَا مِن لَّدُنكَ رَحْمَةً إِنَّكَ أَنتَ الْوَهَّابُ

উচ্চারণঃ রব্বানা- লাতুজিগ কূলুবানা- বা’দা ইজ হাদাইতানা ওয়া হাবলানা- মিললাদুনকা রহমাহ ইন্নাকা আন্তাল ওয়াহ হা-ব

অর্থঃ ‘হে আমাদের রব  সরল পথ প্রদর্শনের পর তুমি আমাদের অন্তরকে সত্যলংঘনে প্রবৃত্ত করোনা এবং তোমার নিকট থেকে আমাদিগকে অনুগ্রহ দান কর। তুমিই সব কিছুর দাতা।
[সূরা আল ইমরান-৮]

-رَبَّنَا آتِنَا مِن لَّدُنكَ رَحْمَةً وَهَيِّئْ لَنَا مِنْ أَمْرِنَا رَشَدًا

উচ্চারণঃ রব্বানা  আ-তিনা-মিল্লাদুন্কা রহমাহ অহাইয়ি’ লানা- মিন্ আমরিনা- রশাদা-।

অর্থঃ হে আমাদের রব, আমাদেরকে নিজের কাছ থেকে রহমত দান করুন এবং আমাদের জন্যে আমাদের কাজ সঠিকভাবে পূর্ণ করুন। [সূরা কাহফ -১০]

 গুনাহ মাফের জন্য দো‘আঃ

-رَبَّنَا ظَلَمۡنَآ أَنفُسَنَا وَإِن لَّمۡ تَغۡفِرۡ لَنَا وَتَرۡحَمۡنَا لَنَكُونَنَّ مِنَ ٱلۡخَٰسِرِينَ

উচ্চারণঃ রব্বানা- জোয়ালাম্না- আনফুসানা- অইল্লাম্ তাগফির লানা-অতারহামনা-লানাকূনান্না মিনাল্ খ-সিরীন্।

অর্থঃ ‘হে আমাদের রব, আমরা নিজদের উপর অন্যায় করেছি। আর যদি আপনি আমাদেরকে ক্ষমা না করেন এবং আমাদেরকে রহম না করেন তবে অবশ্যই আমরা ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত হব।’ [সুরা আ’রাফ : আয়াত ২৩]

رَبَّنَا لاَ تُؤَاخِذْنَا إِن نَّسِينَا أَوْ أَخْطَأْنَا رَبَّنَا وَلاَ تَحْمِلْ عَلَيْنَا إِصْرًا كَمَا حَمَلْتَهُ عَلَى الَّذِينَ مِن قَبْلِنَا رَبَّنَا وَلاَ تُحَمِّلْنَا مَا لاَ طَاقَةَ لَنَا بِهِ وَاعْفُ عَنَّا وَاغْفِرْ لَنَا وَارْحَمْنَآ أَنتَ مَوْلاَنَا فَانصُرْنَا عَلَى الْقَوْمِ الْكَافِرِينَ

উচ্চারণঃরব্বানা- লা-তুআ- খি জ্‌না ইন নাছিনা- আও আখত’না রব্বানা- অলা- তাহ্‌মিল আলাইনা- ইছরং কামা- হামালতাহু আলাল্লাজিনা মিন কবলিনা- রব্বানা- অলা-তুহাম্মিলনা- মালা-ত-কতালানা- বিহি অ’ফুআন্ন অগফিরলানা- অরহাম্‌না- আন্‌তা মাওলানা ফান্‌ছুরনা- আলাল কওমিল কাফিরী-ন।

অর্থঃ হে আমাদের রব , যদি আমরা ভুলে যাই কিংবা ভুল করি, তবে আমাদেরকে অপরাধী করো না। হে আমাদের পালনকর্তা! এবং আমাদের উপর এমন দায়িত্ব অর্পণ করো না, যেমন আমাদের পূর্ববর্তীদের উপর অর্পণ করেছ, হে আমাদের প্রভূ! এবং আমাদের দ্বারা ঐ বোঝা বহন করিও না, যা বহন করার শক্তি আমাদের নাই। আমাদের পাপ মোচন কর। আমাদেরকে ক্ষমা কর এবং আমাদের প্রতি দয়া কর। তুমিই আমাদের প্রভু। সুতরাং কাফের সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে আমাদের কে সাহায্যে কর। [সূরা আল বাক্বারাহ : আয়াত ২৮৬]

-رَبَّنَا فَاغْفِرْ لَنَا ذُنُوبَنَا وَكَفِّرْ عَنَّا سَيِّئَاتِنَا وَتَوَفَّنَا مَعَ الأبْرَارِ

উচ্চারনঃ রব্বানা- ফাগফিরলানা- জুনুবানা- ও কাফফিরআন্না ছাইইয়াতিনা-  অতা ওয়াফফানা- মায়াল আবর-র।

অর্থঃ হে আমাদের রব অতঃপর আমাদের সকল গোনাহ মাফ কর এবং আমাদের সকল দোষত্রুটি দুর করে দাও, আর আমাদের মৃত্যু দাও নেক লোকদের সাথে।
[সূরা আল ইমরান : আয়াত ১৯৩]

-رَّبِّ ٱغۡفِرۡ وَٱرۡحَمۡ وَأَنتَ خَيۡرُ ٱلرَّٰحِمِينَ

উচ্চারনঃ রব্বিগফির অরহাম ও আন্তা খইরূর র-হিমী-ন।

অর্থঃ  ‘হে আমাদের  রব , আপনি ক্ষমা করুন, দয়া করুন এবং আপনিই সর্বশ্রেষ্ঠ দয়ালু।’
[সুরা মুমিনুন : আয়াত ১১৮]

-رَبَّنَا آمَنَّا فَاغْفِرْ لَنَا وَارْحَمْنَا وَأَنتَ خَيْرُ الرَّاحِمِينَ

উচ্চারণঃরব্বানা আ-মান্না- ফাগফিরলানা-অরহামনা-অআন্তা খইর্রু র-হিমীন্।

হে আমাদের রব  আমরা বিশ্বাস স্থাপন করেছি। অতএব তুমি আমাদেরকে ক্ষমা কর ও আমাদের প্রতি রহম কর। তুমি তো দয়ালুদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ দয়ালু।
[সূরা আল মু’মিনূন – ১০৯]

-رَبِّ إِنِّي ظَلَمْتُ نَفْسِي فَاغْفِرْ لِي فَغَفَرَ لَهُ إِنَّهُ هُوَ الْغَفُورُ الرَّحِيمُ

উচ্চারণঃ রব্বি ইন্নী জলামতু নাফছি ফাগফিরলী ফা গফারা লাহু ইন্নাহু হুয়াল গফুরর রহীম।

হে আমার রব, আমি তো নিজের উপর জুলুম করে ফেলেছি। অতএব, আমাকে ক্ষমা করুন। আল্লাহ তাকে ক্ষমা করলেন। নিশ্চয় তিনি ক্ষমাশীল, দয়ালু।
[সূরা আল কাসাস – ১৬]

-رَبَّنَا ٱغۡفِرۡ لَنَا ذُنُوبَنَا وَإِسۡرَافَنَا فِيٓ أَمۡرِنَا وَثَبِّتۡ أَقۡدَامَنَا وَٱنصُرۡنَا عَلَى ٱلۡقَوۡمِ ٱلۡكَٰفِرِينَ

উচ্চারণঃ রব্বানাগফির লানা জুনূবানা ও ইসর-ফানা ফি আমরিনা- ও ছাব্বিত আকদামানা অনছুর না- আলাল কওমিল কাফিরীন।

অর্থঃ ‘হে আমাদের রব, আমাদের পাপ ও আমাদের কর্মে আমাদের সীমালঙ্ঘন ক্ষমা করুন এবং অবিচল রাখুন আমাদের পদসমূহকে, আর কাফির কওমের উপর আমাদেরকে সাহায্য করুন।’ [সুরা আলে ইমরান : ১৪৭]

  -رَبَّنَا أَتْمِمْ لَنَا نُورَنَا وَاغْفِرْ لَنَا إِنَّكَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

উচ্চারণঃরব্বানা- আত মিমলানা-নূরনা- অগফিরলানা ইন্নাকা আলা কুল্লি শাঈইন কদী-র।

অর্থঃ হে আমাদের রব, আমাদের নূরকে পূর্ণ করে দিন এবং আমাদেরকে ক্ষমা করুন। নিশ্চয় আপনি সবকিছুর উপর সর্ব শক্তিমান।[সূরা আত-তাহরীম – ৮]

রোগ ও বিপদ থেকে মুক্তি লাভের দো‘আঃ

-لَّا إِلَهَ إِلَّا أَنتَ سُبْحَانَكَ إِنِّي كُنتُ مِنَ الظَّالِمِينَ

উচ্চারণঃ লা-ইলাহা ইল্লা আন্তা ছুবহানাকা ইন্নীকুংতু মিনাজজলিমী-ন।

অর্থঃ তুমি ব্যতীত কোন উপাস্য নেই; তুমি নির্দোষ আমি গুনাহগার।
[সূরা আম্বিয়া – ৮৭]

-رَّبِّ أَنِّي مَسَّنِيَ الضُّرُّ وَأَنتَ أَرْحَمُ الرَّاحِمِينَ

উচ্চারনঃ রব্বি আন্নী মাছছানিয়াদ দুররু ও আন্তা  আরহামুরর- হিমী-ন।

অর্থঃ আমি দুঃখকষ্টে পতিত হয়েছি এবং আপনি দয়াবানদের চাইতেও সর্বশ্রেষ্ট দয়াবান।

লেখাপড়া ও জ্ঞান লাভের দো‘আঃ

-رَّبِّ زِدْنِي عِلْمًا

উচ্চারণঃ রব্বি ঝিদনী ইলমা-।

অর্থঃ হে আমার রব, আমার জ্ঞান বৃদ্ধি করুন।[সূরা ত্বোয়া-হা – ১১৪]

 -رَبِّ اشْرَحْ لِي صَدْرِي-وَيَسِّرْ لِي أَمْرِي-وَاحْلُلْ عُقْدَةً مِّن لِّسَانِي-يَفْقَهُوا قَوْلِي

উচ্চারণঃ রব্বিশরহলি সদরী ও ইয়াছছিরলি আমরী অয়াহলুল উকদাতাম মিল লিছানী ইয়াফকহু কঅলি-।

অর্থঃ হে আমার  রব আমার বক্ষ প্রশস্ত করে দিন।এবং আমার কাজ সহজ করে দিন।এবং আমার জিহবা থেকে জড়তা দূর করে দিন।যাতে তারা আমার কথা বুঝতে পারে।
[ত্বোয়া-হা – ২৫-২৮]

দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণ চাওয়ার দো‘আঃ

 -رَبَّنَآ ءَاتِنَا فِي ٱلدُّنۡيَا حَسَنَةٗ وَفِي ٱلۡأٓخِرَةِ حَسَنَةٗ وَقِنَا عَذَابَ ٱلنَّارِ

উচ্চারনঃ রব্বানা আ-তিনা-ফিদ্ দুন্ইয়া-হাসানাতাওঁ অফিল্ আ-খিরাতি হাসানাতাওঁ অক্বিনা-‘আযা-বান্না-র।

অর্থঃ ‘হে আমাদের রব, আমাদেরকে দুনিয়াতে কল্যাণ দিন। আর আখিরাতেও কল্যাণ দিন এবং আমাদেরকে আগুনের আযাব থেকে রক্ষা করুন।’ [সুরা বাকারা : আয়াত ২০১]

-رَبِّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ أَنْ أَسْأَلَكَ مَا لَيْسَ لِي بِهِ عِلْمٌ وَإِلاَّ تَغْفِرْ لِي وَتَرْحَمْنِي أَكُن مِّنَ الْخَاسِرِينَ

উচ্চারনঃরব্বি ইন্নি- আয়ূজুবিকা আন আসাআলুকা মা লাইছা লী- বিহি ইলমুওইল্লা তাগফিরলী- ওয়া তারহামনি- আকুম মিনাল খছিরীন।

অর্থঃ হে আমার  রব আমার যা জানা নেই এমন কোন দরখাস্ত করা হতে আমি আপনার কাছেই আশ্রয় প্রার্থনা করছি। আপনি যদি আমাকে ক্ষমা না করেন, দয়া না করেন, তাহলে আমি ক্ষতিগ্রস্ত হব।
[সূরা হুদ – ৪৭]

-رَبَّنَا آتِنَا مِن لَّدُنكَ رَحْمَةً وَهَيِّئْ لَنَا مِنْ أَمْرِنَا رَشَدًا

উচ্চারনঃ রব্বানা- আ-তিনা- মিল্লাদুনকা ও হাই ই’ লানা- মিন আমরিনা- রশাদা-।

অর্থঃ হে আমাদের  রব , আমাদেরকে নিজের কাছ থেকে রহমত দান করুন এবং আমাদের জন্যে আমাদের কাজ সঠিকভাবে পূর্ণ করুন।
[সূরা আম্বিয়া – ৮৭]

-رَبِّ إِنِّي لِمَا أَنزَلْتَ إِلَيَّ مِنْ خَيْرٍ فَقِيرٌ

উচ্চারনঃরব্বি ইন্নী- লিমা- আনঝালতা ইলাইয়া মিন খরিন ফাকী-র।

অর্থঃ হে আমার রব, তুমি আমার প্রতি যে অনুগ্রহ নাযিল করবে, আমি তার মুখাপেক্ষী।
[সূরা আল কাসাস – ২৪]

-رَبَّنَا أَفْرِغْ عَلَيْنَا صَبْرًا وَتَوَفَّنَا مُسْلِمِينَ

উচ্চারনঃ রব্বানা- আফরিগ আলাইনা- ছবরও  অতাওফফানা- মুসলিমী-ন।

অর্থঃ হে আমাদের রব আমাদের জন্য ধৈর্য্যের দ্বার খুলে দাও এবং আমাদেরকে মুসলমান হিসাবে মৃত্যু দান কর। [সূরা আল আ’রাফ -১২৬]

-رَّبِّ أَنزِلْنِي مُنزَلًا مُّبَارَكًا وَأَنتَ خَيْرُ الْمُنزِلِينَ

উচ্চারনঃ রব্বি আনযহালনী মনযহিলাম মুবারকাও ও আনতা খইরুল মুনঝিলী-ন।

অর্থঃ হে আমার রব , আমাকে কল্যাণকর ভাবে নামিয়ে দাও, তুমি শ্রেষ্ঠ অবতারণকারী।
[সূরা আল মু’মিনূন – ২৯]

-الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي أَذْهَبَ عَنَّا الْحَزَنَ إِنَّ رَبَّنَا لَغَفُورٌ شَكُورٌ

উচ্চারণঃ আলহামদুলিল্লাহিল্লাজি আজহাবা আন্না- লহাযানা ইন্না রব্বানা- লাগফুরুন শাকূ-র।

অর্থঃ সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর, যিনি আমাদের দূঃখ দূর করেছেন। নিশ্চয় আমাদের পালনকর্তা ক্ষমাশীল, গুণগ্রাহী।
[সূরা ফাতির – ৩৪]

-رَبَّنَآ ءَامَنَّا بِمَآ أَنزَلۡتَ وَٱتَّبَعۡنَا ٱلرَّسُولَ فَٱكۡتُبۡنَا مَعَ ٱلشَّٰهِدِينَ

উচ্চারণঃ রব্বানা- আ-মান্না- বিমা- আনযহালতা অত্তাবা’না- ররসূলা ফাকতুব না- মায়াশশাহিদীন।

অর্থঃ ‘হে আমাদের রব, আপনি যা নাযিল করেছেন তার প্রতি আমরা ঈমান এনেছি এবং আমরা রাসূলের অনুসরণ করেছি। অতএব, আমাদেরকে সাক্ষ্যদাতাদের তালিকাভুক্ত করুন।’
[সুরা আলে ইমরান : আয়াত ৩৫]

-رَبَّنَا لاَ تَجْعَلْنَا فِتْنَةً لِّلْقَوْمِ الظَّالِمِينَ – وَنَجِّنَا بِرَحْمَتِكَ مِنَ الْقَوْمِ الْكَافِرِينَ

উচ্চারণঃ  রব্বানা- লা- তাজআলনা- ফিতনাতাল লিল কওমিজ্জলিমী-ন। ও নাজ্জিনা- বিরহমাতিকা মিনাল কওমিল কা-ফী-রী-ন।

অর্থঃ হে আমাদের  রব , আমাদের উপর এ জালেম কওমের শক্তি পরীক্ষা করিও না।আর আমাদেরকে অনুগ্রহ করে ছাড়িয়ে দাও এই কাফেরদের কবল থেকে।
[সূরা ইউনুস – ৮৫,৮৬]

পূর্ববর্তী মুসলিম দের জন্য দো‘আঃ

-رَبَّنَا اغْفِرْ لَنَا وَلِإِخْوَانِنَا الَّذِينَ سَبَقُونَا بِالْإِيمَانِ وَلَا تَجْعَلْ فِي قُلُوبِنَا غِلًّا لِّلَّذِينَ آمَنُوا رَبَّنَا إِنَّكَ رَؤُوفٌ رَّحِيمٌ

উচ্চারণঃ  রব্বানাগ্‌ ফিরলানা- অলিইখঅনিলিল্লাজি-না ছাবাকূনা- বিল ঈমানি অলা- তাজয়াল ফী- কূলুবিনা- গিল্লাল লিল্লাজিনা আমানূ- রব্বানা- ইন্নাকা রউ-ফুর রহীম।

অর্থঃ হে আমাদের রব, আমাদেরকে এবং ঈমানে আগ্রহী আমাদের ভ্রাতাগণকে ক্ষমা কর এবং ঈমানদারদের বিরুদ্ধে আমাদের অন্তরে কোন বিদ্বেষ রেখো না। হে আমাদের পালনকর্তা, আপনি দয়ালু, পরম করুণাময়।
[সূরা আল হাশর – ১০]

শয়তানের প্ররোচনা থেকে আশ্রয় প্রার্থনাঃ

-رَّبِّ أَعُوذُ بِكَ مِنْ هَمَزَاتِ الشَّيَاطِينِ- وَأَعُوذُ بِكَ رَبِّ أَن يَحْضُرُونِ

উচ্চারণঃ রব্বি আউজুবিকা মিন হামাজাতিশ শায়াতী-ন। অ আউজুবিকা রব্বি আই ইয়াহ্‌দুরূ-ন।

অর্থঃহে আমার রব  আমি শয়তানের প্ররোচনা থেকে আপনার আশ্রয় প্রার্থনা করি ।এবং হে আমার পালনকর্তা! আমার নিকট তাদের উপস্থিতি থেকে আপনার আশ্রয় প্রার্থনা করি।
[সূরা আল-ফুরকান – ৯৭,৯৮]

জাহান্নামের শাস্তি থেকে মুক্তি চাওয়াঃ

-رَبَّنَا اصْرِفْ عَنَّا عَذَابَ جَهَنَّمَ إِنَّ عَذَابَهَا كَانَ غَرَامًا – إِنَّهَا سَاءتْ مُسْتَقَرًّا وَمُقَامًا

উচ্চারণঃ রব্বানাছরিফ আন্না- আজাবা জাহান্নাম ইন্না আজাবাহা- কা-না গর-মা-।ইন্নাহা- ছা-আত মুস্তাকররওঁ অয়া মুক-মা-।

অর্থঃহে আমার রব, আমাদের কাছ থেকে জাহান্নামের শাস্তি হটিয়ে দাও। নিশ্চয় এর শাস্তি নিশ্চিত বিনাশ ।বসবাস ও অবস্থানস্থল হিসেবে তা কত নিকৃষ্ট জায়গা।
[সূরা আল-ফুরকান – ৬৫,৬৬]

-رَبَّنَا اكْشِفْ عَنَّا الْعَذَابَ إِنَّا مُؤْمِنُونَ

উচ্চারণঃ রব্বা না-কশিফ আন্না-ল আজাবা ইন্না- মু’মিনূ-ন।

অর্থঃ হে আমাদের রব আমাদের উপর থেকে শাস্তি প্রত্যাহার করুন, আমরা বিশ্বাস স্থাপন করছি। [সূরা আদ দোখান – ১২]


নিয়ামতের কৃতজ্ঞতাপ্রকাশের জন্য তাওফিক চাওয়াঃ

-رَبِّ أَوْزِعْنِي أَنْ أَشْكُرَ نِعْمَتَكَ الَّتِي أَنْعَمْتَ عَلَيَّ وَعَلَى وَالِدَيَّ وَأَنْ أَعْمَلَ صَالِحًا تَرْضَاهُ وَأَدْخِلْنِي بِرَحْمَتِكَ فِي عِبَادِكَ الصَّالِحِينَ

উচ্চারণঃ রব্বি আওজি’নী আন আশকুরা নি’মাতাকাল্লাতি আনামতা আলাইয়া ও আলা অয়ালিদাইয়া অ আন আ’মালা ছলিহান্‌ তারদ-হু অ আদখিলনি বিরহ মাতিকা ফি ইবাদিকাছ ছলিহী-ন।

অর্থঃহে আমার রব, তুমি আমাকে সামর্থ দাও যাতে আমি তোমার সেই নিয়ামতের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে পারি, যা তুমি আমাকে ও আমার পিতা-মাতাকে দান করেছ এবং যাতে আমি তোমার পছন্দনীয় সৎকর্ম করতে পারি এবং আমাকে নিজ অনুগ্রহে তোমার সৎকর্মপরায়ন বান্দাদের অন্তর্ভুক্ত কর।
[সূরা নমল – ১৯]

رَبِّ أَوْزِعْنِي أَنْ أَشْكُرَ نِعْمَتَكَ الَّتِي أَنْعَمْتَ عَلَيَّ وَعَلَى وَالِدَيَّ وَأَنْ أَعْمَلَ صَالِحًا تَرْضَاهُ وَأَصْلِحْ لِي فِي ذُرِّيَّتِي إِنِّي تُبْتُ إِلَيْكَ وَإِنِّي مِنَ الْمُسْلِمِينَ

উচ্চারণঃ রব্বি আওজি’নী আন আশকুরা নি’মাতাকাল্লাতি আনামতা আলাইয়া ও আলা অয়ালিদাইয়া অ আন আ’মালা ছলিহান্‌ তারদ-হু অ আছলিহ লী- ফী- জুররিয়াতি- ইন্নী- তুবতু ইলাইকা অ ইন্নি- মিনাল মুসলিমী-ন।

অর্থঃহে আমার  রব, আমাকে এরূপ ভাগ্য দান কর, যাতে আমি তোমার নেয়ামতের শোকর করি, যা তুমি দান করেছ আমাকে ও আমার পিতা-মাতাকে এবং যাতে আমি তোমার পছন্দনীয় সৎকাজ করি। আমার সন্তানদেরকে সৎকর্মপরায়ণ কর, আমি তোমার প্রতি তওবা করলাম এবং আমি আজ্ঞাবহদের অন্যতম।
[সূরা আল আহক্বাফ  ১৫]

হিদায়েতের জন্য দো‘আঃ

-اهدِنَــــا الصِّرَاطَ المُستَقِيمَ-صِرَاطَ الَّذِينَ أَنعَمتَ عَلَيهِمْ غَيرِ المَغضُوبِ عَلَيهِمْ وَلاَ الضَّالِّينَ

উচ্চারণঃ ইহদিনাছ ছির-তল মুছতাকী-ম।ছির-তল্লাজী-না আন আমতা আলাইহিম গইরিল মাগদূ-বি আলাইহিম অলাদ দ-ল লী-ন।

অর্থঃ আমাদেরকে সরল পথ দেখাও।সে সমস্ত লোকের পথ, যাদেরকে তুমি নেয়ামত দান করেছ। তাদের পথ নয়, যাদের প্রতি তোমার গজব নাযিল হয়েছে এবং যারা পথভ্রষ্ট হয়েছে।
[সূরা আল ফাতিহাঃ ৬,৭]

অত্যাচারী ও অত্যাচার থেকে পরিত্রানের দো‘আঃ

-رَبِّ فَلَا تَجْعَلْنِي فِي الْقَوْمِ الظَّالِمِينَ

উচ্চারণঃ রব্বি ফালা-তাজাআলনী ফিল কওমিজ জলিমী-ন।

অর্থঃ হে আমার পালনকর্তা! তবে আপনি আমাকে গোনাহগার সম্প্রদায়ের অন্তর্ভূক্ত করবেন না।[ সূরা আল মু’মিনূনঃ ৯৪]

-رَبَّنَا لاَ تَجْعَلْنَا مَعَ الْقَوْمِ الظَّالِمِينَ

উচ্চারণঃ রব্বানা-লা- তাজআললানা-  মাআ’ল কওমিজ জলিমী-ন।

অর্থঃ হে আমাদের  রব, আমাদেরকে এ জালেমদের সাথী করো না।
[ সূরা আল আ’রাফঃ ৪৭]

-رَبَّنَا أَخْرِجْنَا مِنْ هَـذِهِ الْقَرْيَةِ الظَّالِمِ أَهْلُهَا وَاجْعَل لَّنَا مِن لَّدُنكَ وَلِيًّا وَاجْعَل لَّنَا مِن لَّدُنكَ نَصِيرًا

উচ্চারণঃ রব্বানা- আখরিজনা- মিন হাজিহিল করইয়াতিজ-জ-লিমি আহ্‌লুহা- অজাআললানা- মিললাদুংকা অলিই ইয়াও অজআল লানা- মিল লাদুন্‌কা নাছির-

 অর্থঃহে আমাদের  রব  আমাদিগকে এই জনপদ থেকে নিষ্কৃতি দান কর; এখানকার অধিবাসীরা যে, অত্যাচারী! আর তোমার পক্ষ থেকে আমাদের জন্য পক্ষালম্বনকারী নির্ধারণ করে দাও এবং তোমার পক্ষ থেকে আমাদের জন্য সাহায্যকারী নির্ধারণ করে দাও।
[ সূরা আল আ’রাফঃ ৭৫]